আজ ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

নেত্রকোণায় শীত নিবারণে গরীবের ভরসা “বটতলা মার্কেট “

সোলাইমান হোসাইন রুবেল, নেত্রকোণা প্রতিনিধিঃ

সারাদেশে জেঁকে বসেছে শীত। শীতের এ তীব্রতা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে গরম কাপড়ের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে ও জমজমাট হয়ে উঠছে নেত্রকোণায় গরীবের শীতের কাপড়ের বাজার।

 

নেত্রকোণা পৌর শহরের বড় বাজারস্থ বটতলা মন্দিরের সামনে শীতের কাপড়ের মার্কেটটি মূলত গরীবের শীতের মার্কেট হিসেবেই পরিচিত।

 

এই শীতে প্রতিদিন দুপুর থেকেই পুরান কাপড়ের বাজার ও মার্কেটে শীতের কাপড় দোকানে ক্রেতাদের ভিড় ক্রমশ বাড়ছে।

 

শীতে গরম পোশাক কিনছেন সবাই। পা থেকে মাথা পর্যন্ত শীত নিবারণ করতে গরম কাপড় কেনায় ব্যস্ত মানুষ। উচ্চ আয়ের মানুষেরা মার্কেটের বিভিন্ন নামি-দামি দোকান থেকে বিভিন্ন দামি গরম কাপড় কিনতে পারলেও গরিব ও নিম্ন আয়ের মানুষের একমাত্র ভরসা ফুটপাতে বসা বটতলার এই গরম কাপড়।

 

শীতের কাপড়ের এ মার্কেটটি মূলত গরীবের শীতের মার্কেট হিসেবেই পরিচিত। এখানে বিভিন্ন শ্রেণির লোকজন কাপড় কিনে থাকেন। সব বয়সীদের শীতের পোশাক মিলছে। সোয়েটার, কম্বল, জ্যাকেটসহ গরম কাপড়ে ঠাসা বটতলার দোকানগুলোতে। দামও ক্রেতার নাগালের মধ্যে।

 

বেচাকেনা ভালো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন দোকানিরা। উলের তৈরি সোয়েটার, ছেলেদের ব্লেজার, কানটুপি,জ্যাকেট, ট্রাউজার, হাত ও পা-মোজা, মাফলার, চাদর ও কম্বলসহ নানা ধরনের গরম কাপড় পাওয়া যাচ্ছে। মধ্য ও নিম্ন আয়ের মানুষের পাশাপাশি বিত্তবানরাও এসব দোকানে ভিড় করছেন। এখানকার ব্যবসায়ীরা শুধু শীতে নয়, বছরের প্রায় সময়ই বিভিন্ন ধরনের পুরাতন কাপড় কেনা-বেচা করে থাকেন।

 

বছরের অন্যান্য সময় এখানে তেমন কেনা-বেচা না হলেও শীতকে সামনে রেখে এখানকার ব্যবসা জমজমাট হয়। এতে তারা ভালোই লাভবান হন। পুরানো শীতবস্ত্র বিক্রেতা আমিন বলেন, সব বয়সী মানুষের পোশাক বিক্রয় হচ্ছে এসব দোকানগুলোতে।

 

শীতের তীব্রতা বাড়ায় ক্রেতার সঙ্গে বিক্রিও বাড়ছে। তিনি আশা করছেন, শীত যদি আরও বাড়ে ক্রেতা সমাগম আরও বেশি হবে। শীতের পোশাক কিনতে আসা গৃহিনী রাবিয়া জানান, আমাদের মতো কম আয়ের মানুষের জন্য শীতের সব কিছুই পাওয়া যাচ্ছে বটতলার দোকানগুলোতে। শীতের ভালো পোশাক উঠেছে। দামের দিক দিয়েও মোটামুটি সস্তা। তবে দরদাম করেই পছন্দসই পোশাক কিনতে হয়।

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap