আজ ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১লা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

এ দেশের জনগন আমাকে না চাইলে দেশ ছেরে চলে যাব: ড. বিজন 

নিউজ ডেস্কঃ

অনুজীব বিজ্ঞানী ড. বিজন কুমার শীল বলেছেন, বাংলাদেশের মানুষ না চাইলে তিনি সিঙ্গাপুর চলে যাবেন। ‘আর দেশের মানুষ যদি চায় তাহলে তাদের পাশে থাকবো’ এমনটাই জানিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কভিড-১৯ শনাক্তকরণ কিট ‘জিআর কভিড-১৯ ডট ব্লোট’ উদ্ভাবক দলের প্রধান বিজ্ঞানী ড. বিজন কুমার শীল।
রবিবার গণমাধ্যমকে ড. বিজন কুমার শীল বলেন, ‘দেশের মানুষ যদি মনে করে আমি তাদের কোনো উপকারে আসিনি তবে আমি সিঙ্গাপুরে চলে যাব। এতে কোনো সমস্যা নেই আমার। আর দেশের মানুষ যদি চায় আমি তাদের পাশে থাকি তবে এখানে থাকার চেষ্টা করব। সরকারও আমাকে ওয়ার্ক পারমিট ভিসা দেবে। বাংলাদেশের মানুষের কল্যাণে কাজ করাই আমার উদ্দেশ্য।’
উল্লেখ্য, ড. বিজন কুমার শীল বাংলাদেশে জন্মগ্রহণ করলেও তিনি এখন এ দেশের নাগরিক নন। ড. বিজন এখন সিঙ্গাপুরের নাগরিক। ২০০২ সালে সিঙ্গাপুর সিভিল সার্ভিসে যোগদানের সময় নিয়ম অনুযায়ী তিনি বাংলাদেশের নাগরিকত্ব ছেড়ে দেন এবং ওই দেশের নাগরিকত্ব গ্রহণ করেন। ড. বিজন বর্তমানে বাংলাদেশে ট্যুরিস্ট ভিসা নিয়ে অবস্থান করছেন।
ড. বিজন বলেন, ‘এ অবস্থায় এ দেশে গবেষণা, শিক্ষকতা বা অন্য কোনো কাজে যুক্ত থাকতে পারি না।’
তিনি আরও জানান, ইতিমধ্যে বাংলাদেশে তার ওয়ার্ক পারমিট ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। বাংলাদেশ সরকারের কাছে ভিসার মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন জমা দিয়েছে গণবিশ্ববিদ্যালয়। গবেষক ও অণুজীব বিজ্ঞানী হিসেবে বিশ্বে সুপরিচিত ড. বিজন কুমার শীল। নাটোরের এক কৃষক পরিবারে ১৯৬১ সালে জন্ম হয় এই বিজ্ঞানীর।

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap