আজ ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১লা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ডিসি-এসপি সেজে ২২ লাখ টাকা আদায়, অতঃপর গ্রেফতার

কুষ্টিয়া-
কখনও ডিসি কখনও এসপি আবার কখনও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতার এপিএস সেজে হাতিয়ে নিয়েছেন লাখ লাখ টাকা।এমন বিস্তর অভিযোগ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার লক্ষীধরদিয়াড় গ্রামের মোসলেম আলীর ছেলে বহুরূপী প্রতারক মকলেছ আলীর (৩৩) বিরুদ্ধে।জেলা গোয়েন্দা পুলিশ শুক্রবার সন্ধ্যায় ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করেছে।তার এই অপকর্মের দোসরদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।
পুলিশ জানায়,প্রতারক মকলেছ জেলার ভেড়ামারার জর্দা ব্যবসায়ী জাকির হোসেন কাছ থেকে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে চাঁদা দেয়ার কথা বলে ৫ লাখ টাকাসহ বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন অজুহাতে প্রায় ২২ লাখ টাকা আদায় করে।একইভাবে এই প্রতারক সাবেক সংস্থাপন সচিব ও আওয়ামী লীগের এক উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্যের কথিত এপিএস পরিচয় দিয়ে মিরপুর উপজেলার পোড়াদহ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ফারকুজ্জামানের কাছ থেকে ঠিকাদারি লাইসেন্স করে দেয়ার জন্য ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা,ভেড়ামারার জনৈক আসাদের কাছ থেকে ৬ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন।
এছাড়া আসামির সহযোগী কথিত ডিসি ফাতেমার মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যক্তিকে খাস জমি পাইয়ে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে দীর্ঘদিন যাবত অর্থ হাতিয়ে আসছে।
কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এসএম তানভির আরাফাত জানান,মকলেছের দলে নারী-পুরুষ মিলিয়ে বেশ কয়েকজন প্রতারক রয়েছে।এরা কখনও নিজেকে ডিসি,কখনও এসপি আবার কখনও ইউএনও পরিচয় দিয়ে নানা উপায়ে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছে। তাদেরও গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap