আজ ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

‘প্রথম আলোর’ সাংবাদিককে গভীর রাতে সিআইডি পরিচয়ে আটক

বিশেষ প্রতিনিধি, সাভার (ঢাকা)

গভীর রাতে প্রথম আলো পত্রিকার সাভারের নিজেস্ব প্রতিবেদককে সিভিল পোশাকে সিআইডি পরিচয় আটক করেছে। প্রথম আলোর প্রতিবেদকের পরিবার থেকে আটক করার অভিযোগ করলেও সংশ্লিষ্ট থানা ও সিআইডি তাকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেনি।

বুধবার ভোররাত ৩:৩০ এর দিকে প্রথম আলো পত্রিকার সাভারের নিজস্ব প্রতিবেদক শামসুজ্জামান শামসকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী আমবাগান এলাকার ভাড়া বাসা থেকে আটক করে নিয়ে যাওয়া হয়ছে। এসময় শামসুজ্জামানের থাকার কক্ষ তল্লাশি করে তাঁর ব্যবহৃত একটি ল্যাপটপ, দুটি মুঠোফোন ও একটি পোর্টেবল হার্ডডিস্ক নিয়ে যায়।

ঘটনার সময় আরিফুল ইসলাম নামে এক স্থানীয় সাংবাদিক শামসুজ্জামানের বাসায় উপস্থিত ছিলেন।
সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম বলেন, ‘ভোর ৪টার দিকে ৩টি গাড়িতে প্রায় ১৪–১৫ জন শামসুজ্জামানের বাসার সামনে যান। তাঁদের সাত থেকে আটজন বাসায় ঢোকেন এবং বাসা তল্লাশির সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা সুদীপ্ত শাহীন উপস্থিত ছিলেন। তাঁরা জব্দ করা মালামালের তালিকা করেন। শামসুজ্জামানকে জামাকাপড় নিতে বলেন। কক্ষের মধ্যে দাঁড় করিয়ে তাঁর ছবি তোলা হয়। পাঁচ থেকে সাত মিনিটের মধ্যে আবার তাঁরা বের হয়ে যান।

প্রত্যক্ষদর্শী জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষার্থী বলেন, ক্যাম্পাসে বটতলার নূরজাহান হোটেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা সুদীপ্ত শাহীন, একজন নিরাপত্তা প্রহরী ও শামসুজ্জামানসহ মোট ১৯ জন ব্যক্তি সাহরির খাবার খান।
তুলে নেওয়ার সময় ওই বাড়ির মালিককে ডাকেন সিআইডি পরিচয়ধারী ব্যক্তিরা। তাঁরা বাড়ির মালিককে বলেন, শামসুজ্জামানের করা একটি প্রতিবেদনের বিষয়ে রাষ্ট্রের আপত্তি আছে। তাই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে নেওয়া হচ্ছে।

শামসুজ্জামানের গ্রামের বাড়ি মানিকগঞ্জের কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের কৃষ্ণপুরে। তিনি গুলশানের হলি আর্টিজান হামলায় শহীদ পুলিশের এসি রবিউল ইসলামের ভাই।

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap