আজ ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

গোপনে পোস্টার লাগিয়ে শিবিরের সক্রিয়তার প্রকাশ

বিশেষ প্রতিনিধি- সাভার (ঢাকা)

সাভারের বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় হঠাৎ করে গোপনে পোস্টার লাগিয়ে নিজেদের সক্রিয়তার জানান দিলো বাংলাদেশ জামায়াত ইসলামীর ছাত্র সংগঠন ছাত্র শিবির। যুদ্ধাপরাধী মামলায় আটক জামায়াত নেতা মাওলানা দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর মুক্তি ও ১০ দফা দাবি জানিয়ে এই পোস্টার লাগায় বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্র শিবির।

মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) বিকেলে লক্ষ্য করা যায় পৌর সভার রেডিওকলোনী এলাকায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ডিভাইডারের ওয়ালে হঠাৎ করেই ‘মাহে রমজানের ডাক’ শিরোনামে কে বা কারা পোস্টার গুলো লাগিয়ে যায়।

এছাড়াও সাভার পৌর এলাকার ব্যাংক কলোনী, শিমুলতলা, ছায়াবীথিসহ বিভিন্ন এলাকায় মোড়ে ও গলির মুখের দেয়ালেও  এই পোস্টার দেখা যায়। স্থানীয়রা বলছে হয়তো বা রাতের আধারে এই পোস্টারগুলো লাগানো হয়েছে তবে বিষয়টি বিকেলে সকলের নজরে আসে।

জানা গেছে, ২০০১-২০০৬ সালে চারদলীয় জোটের সরকারের অন্যতম শরীক ধর্মভিত্তিক দল জামায়াতে ইসলামীর ছাত্র সংগঠন ইসলামি ছাত্র শিবির। সংগঠনটির বিরুদ্ধে নৃশংসভাবে বিরোধী সংগঠনসমূহের ওপর নির্যাতনের বহু অভিযোগ ও হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটানোর দায় রয়েছে। ২০০৮ সালের নির্বাচনের পর চারদলীয় জোট বিদায় হওয়ার পরেও রাজনৈতিক বিরোধীতায় এই সংগঠনের বিরুদ্ধে মরণঘাতি বহু হামলার অভিযোগ ওঠে। এক পর্যায়ে তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসন শক্ত অবস্থান নিলে কার্যত প্রকাশ্য রাজনীতি থেকে দূরে সরে যায় সংগঠনটি। তবে কৌশলে রাজনৈতিক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে তারা। সাভারেও একইভাবে কৌশলে গোপনে রাজনৈতিক তৎপরতা চালিয়ে আসছে ছাত্র শিবির। গত ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসেও আশুলিয়ার ইউনিক এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির।

সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফখরুল আলম সমর বলেন, রমজান মাসে মূলত এই ধরণের উগ্রপন্থী, মৌলবাদী সংগঠন গুলো মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে। ঈদের পরে আমাদের যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে আমরা এই বিষয় গুলো নিয়ে আলোচনা করব।  কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকেও বিষয় গুলো জানাবো এবং কর্মসূচি ঘোষনা করব। এছাড়া কিছু গোপন কর্মসূচি যে গুলো আমাদের আছে সে গুলোর মাধ্যমে ব্যবস্থা নিবো।

সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মাঈনুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। শিবিরের বিষয়ে আমি আপোষহীন। তবে আমার অফিসারদের সাথে বিষয়টি নিয়ে আমি আলোচনা করব। কি করা যায় সেই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেব।

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap