আজ ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৬শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মানববন্ধন

পাবনায় সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবি

সোহেল রানা, পাবনা প্রতিনিধিঃ

পাবনা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সৈকত আফরোজ আসাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় সাংবাদিকরা।

আজ বুধবার (১১ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে শহরের আব্দুল হামিদ সড়কের সামনে আয়োজিত বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম ও তৃনমূল সাংবাদিক সোসাইটি পাবনা শাখার মানববন্ধন থেকে এ দাবি জানানো হয়।

একটি সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিক সৈকত আফরোজ আসাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন পাবনা-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আজিজুল হক আরজু। মামলাটি প্রত্যাহারের দাবিতে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। মানববন্ধনে বক্তারা অবিলম্বে এই মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান। অন্যথায় তারা আরও কঠোর কর্মসূচি দেওয়ার হুমকি দেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন পাবনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমান, জনকণ্ঠের জেলা প্রতিনিধি কৃষ্ণ ভৌমিক, মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম পাবনা শাখার সভাপতি ডা. আব্দুস সালাম, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল জব্বার, মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম পাবনা শাখার সিনিয়র সহ সভাপতি খালেকুজ্জামান পান্নু, রিপোর্টার্স ইউনিটির সম্পাদক কাজী মাহবুব মোর্শেদ বাবলা, একাত্তর টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি মোস্তাফিজ রাসেল, এটিএন নিউজের জেলা প্রতিনিধি রিজভী জয়, মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম পাবনা শাখার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম সাঁথিয়া শাখার সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন, প্রমুখ।

বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম পাবনা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলামের পরিচালনা ও সভাপতি ডা.আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

পাবনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমান জানান, মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও তথ্যমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে। জেলার সব উপজেলাতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হচ্ছে। ইতোমধ্যে পাবনা প্রেসক্লাব ও রিপোর্টার্স ইউনিটি, মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম পাবনা শাখাসহ জেলার সকল সাংবাদিকদের নিয়ে ৩ তিনের লাগাতার কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। আমরা অবিলম্বে মামলা প্রত্যাহারসহ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি জানান।

গত ৮ মার্চ জেলার বেড়া উপজেলার নাটিয়াবাড়ি এলাকায় একটি বাড়িতে অস্ত্রের কারখানার সন্ধান পায় পুলিশ। ওই ঘটনায় দুইজনকে গ্রেফতারও করা হয়। এ ঘটনায় পাবনা-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আজিজুল হক আরজুকে জড়িয়ে পাবনা মেইল টোয়েন্টিফোর ডটকমে সংবাদ প্রকাশ হয়। ৯ জুন আরজু ঢাকায় সাইবার ট্রাইব্যুনালে এই অনলাইনের সম্পাদক সৈকত আফরোজ আসাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন। আজিজুল হক আরজুর দাবি, গ্রেফতার ব্যক্তিদের সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই। সাংবাদিক সৈকত আফরোজ তাকে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে হেয় করতেই সংবাদটি প্রকাশ করেছেন। এ কারণে তিনি মামলাটি করেছেন।

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap