আজ ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৬শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আশুলিয়ায় র‌্যাব এর অভিযানে আটক- ১, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার

বিশেষ প্রতিনিধি:

মঙ্গলবার ভোররাতে আশুলিয়ার একটি ইউনিয়নের এক ছাত্রলীগ নেতাকে আটক করে র‌্যাব-৪ ।

শিমুলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম রবি, ও তার চাচাতো ভাই জনিকে তার চাচ নজরুল ইসলাম কাজির পরিত্যক্ত একটি গ্যারেজের সামনে থেকে ভোর রাতে র‌্যাব-৪ নিয়ে যায় বলে জানান এই ছাত্রলীগ নেতার চাচা ।

এ সময় একটি গ্যারেজ থেকে একটি পিস্তল ও দুটি বুলেট উদ্ধার করা হয়। এর আগে গত বৃহস্পতিবার সুস্থ হয়ে এনাম মেডিকেল থেকে রিলিজ হয়ে সে বাসায় আসে বলে জানা যায়।

আটক রবির চাচা নজরুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, আমার বড় মেয়েকে বিয়ে করতে চেয়েছিল রবি। কিন্তু আমি এতে অসম্মতি জানাই। এর পর থেকেই তাকে নানাভাবে আমাকে হয়রানি করতে থাকে রবি। সোমবার সন্ধ্যায়ও বাড়িতে এসে আমাকে দেখে নেয়ার হুমকি দেয় রবি ও জনি।

পরে রাত সাড়ে ১২টার দিকে ১০-১২ জন র‌্যাব সদস্য আমার বাড়িতে আসে। পরে গ্যারেজে লাকড়ির বস্তায় লুকিয়ে রাখা একটি অস্ত্র ও দুই রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে নিয়ে যায়। আটক করা হয় রবি ও জনিকেও। এর আগে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মদ্যপ অবস্থায় আমার বাড়িতে রবি হামলা চালায়।

তিনি আরও বলেন, ‘রবি আর জনি চাচাত ভাই। রবি আমার বড় ভাইয়ের ছেলে আর জনি চাচাত ভাইয়ের ছেলে। রাত নয়টা-সাড়ে নয়টার দিকে আমার বাড়ির আশপাশে ওরা আনাগোনা করছে। আর বলছে, পামুনে আইজকা পামুনে। পরে রাত সাড়ে ১২টার দিকে র‌্যাব আসে। র‌্যাব আইসা আমার বাড়ির চারুমুড়া ঘেরাও করে দরজা খুলতে বলে। কয়, আপনার রুম চেক করুম। ইনফরমেশন আছে এখানে মাদক, অস্ত্র আছে।’

‘সব দেখে নিচে গেছে পরে র‌্যাবেরে রবি আর জনি কয়, গ্যারেজ চেক করেন স্যার। একটা পরিত্যক্ত গ্যারেজ ছিল আমার। ওইটাতে আগে অটো ভাড়া দিতাম। ওই গ্যারেজের পাশ দিয়া ৯ টার দিকে ওরা আনাগোনা করছে কয়জন।’

‘পরে র‌্যাব লাকড়ির বস্তাটস্তা বাইরাইয়া দেখে যে পিস্তল আর দুই রাউন্ড গুলি। আমি বললাম স্যার, অত্র এলাকায় গিয়ে তদন্ত করেন দেখবেন দশ ট্যাকার অপরাধ পাবেন না আমার। ওরা এহানে বইসা রইছে এগুলি অগো ছাড়া আর কারো কাম না স্যার। এক পর্যায়ে রাত সাড়ে ৩টার দিকে গ্যারেজের সামনে থাইকা অগো ধইরা নিয়া গেছে। র‌্যাবের কমান্ডার রাকিবসহ দশ-বারোজন র‌্যাব আসছিল।’

আটকের বিষয়ে র‌্যাব-৪ (সিপিসি-২) শাখার কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার রাকিব মাহমুদ খান বলেন অদ্য ১৫/০৬/২০২১ইং  গোপন সংবাদের ভিত্তিতে   ০১.০০ ঘটিকার সময় জানতে পারা যায় কতিপয় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী আশুলিয়া থানাধীন  শিমুলিয়া  এলাকায়  অপরাধ সংঘটনের উদ্দেশ্যে অবস্থান করিতেছে। এরুপ সংবাদের ভিত্তিতে  র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল উক্ত  এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ০১ টি দেশী পিস্তল, ০১ টি ম্যাগাজিন ও ০১ রাউন্ড গুলিসহ সন্ত্রাসী রবিউল কে গ্রেফতার করা হয়।

আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক  মামলা রয়েছে।  গ্রেফতারকৃত আসামী অস্ত্র প্রদর্শন করে ভয়ভীতি দেখিয়ে বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যকলাপ পরিচালনা করে আসছিলো। আসামী মূলত অস্ত্রধারী হওয়ায় সাধারণ জনগণ তার বিরুদ্ধে কোন কথা বলতে সাহস করত না এবং কেউ তার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ করলে অস্ত্র প্রদর্শন করে ভয়ভীতি দেখাতো।
তিনি আরো বলেন উপরোক্ত বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন। অদূর ভবিষ্যতে এরূপ অস্ত্রধারী
সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে র‌্যাব-৪ এর জোড়ালো সাঁড়াশি অভিযান অব্যাহত থাকবে

এছাড়াও আরো জানাযায় প্রায় একমাস আগে জমিজমা সংক্রান্ত ঝামেলার জেরে তার চাচা নজরুল ইসলাম কাজী আশুলিয়া থানায় একটি অভিযোগ করেন।

অভিযোগের ব্যাপারে এসআই আল মামুনের সাথে কথা বললে তিনি জানান রবিউল ইসলাম রবির বিরুদ্ধে নজরুল ইসলাম কাজী বাড়ির সামনের একটি রাস্তার ব্যাপার নিয়ে ঝগড়াঝাটি ও জমি জামার ঝামেলা নিয়ে একটি অভিযোগ করেন। পরে অভিযোগের বিষয়টি তাদের পারিবারিক ভাবে মীমাংসা হলে অভিযোগপত্রটি তুলে নেয় তার চাচা।

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap