আজ ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৬ই ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

কালিয়াকৈরে কারখানার আগুন নিভেনি,নিভেছে এক তাজাপ্রাণ তদন্ত কমিটি গঠন

ফজলুল হক, কালিয়াকৈর(গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে এফ বি ফুটওয়্যার লিমিটেড নামে জুতা তৈরির কারখানার ভয়াবহ আগুন। ২৪ ঘন্টায় এখনো পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়নি আগুন। নিভে গেছে এক তাজাপ্রাণ। রোববার সকালে মৃত নারী শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। এছাড়াও অগ্নিকান্ডের ঘটনায় কমপক্ষে ২০ আহত হন। এ ঘটনায় ওই কারখানা তিন দিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

এদিকে ওই অগ্নিকান্ডের ঘটনায় গাজীপুর জেলা প্রশাসক ছয় সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন।

নিহত হলেন, নিহত হলেন, কুড়িগ্রামের চিলমারি উপজেলার বারাবাড়ির হাট সরদারপাড়া গ্রামের আইনুল হোসেনের স্ত্রী গোলাপী আক্তার (৩৩)। তিনি ওই কারখানায় আউট সোল হেল্পার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, কালিয়াকৈর উপজেলার উলুসারা এলাকায় এফ বি ফুটওয়্যার নামের জুতা তৈরি কারখানায় এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। ওই কারখানায় প্রায় ৩ হাজার শ্রমিক রয়েছে। গত শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে হঠাৎ ওই কারখানার টিপিআর (জুতার আউট সোল তৈরি) শাখায় আগুনের সুত্রপাত ঘটে। মুহুর্তের মধ্যে আগুন কারখানার ওই শাখার পুরো সেটে ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে কেমিক্যাল থাকায় আগুনের ভয়াবহতা আরো বৃদ্ধি পায়। আগুন নেভাতে ব্যর্থ হয়ে ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয় কারখানার শ্রমিক-কর্তৃপক্ষ। খবর পেয়ে কালিয়াকৈর, গাজীপুর, টঙ্গী, ইপিজেট, মিজার্পুর ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালায়। এসময় ওই কারখানাসহ আশপাশে আগুন আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। আগুন নেভাতে ও তাড়াহুড়ো করে কারখানা থেকে বের হতে গিয়ে কমপক্ষে ২০ জন আহত হন। আহতদের স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। অগ্নিকান্ডের ঘটনায় এক নারী শ্রমিক নিহত হন। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা প্রায় ৮ ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। কিন্তু রোববার বিকেল ৫টা পর্যন্ত প্রায় ২৪ ঘন্টায়ও আগুন নিভেনি, আগুন ধীরে ধীরে জ্বলছেই। ওই কারখানার আগুন নেভাতে এখনো ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট কাজ করছে। এদিকে রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে গোলাপী আক্তার নামে এক নারী শ্রমিকের পুড়ে যাওয়া লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। খবর পেয়ে নিহতের স্বজনদের আহাজারিতে ওই কারখানা এলাকা ভারী হয়ে উঠে। পরে পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় ওই কারখানা তিন দিনের জন্য বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। আগুনের ঘটনায় কারখানাটির ওই শাখার পুরো সেড ধসে পড়ে। এছাড়া প্রায় ৩ শতাধিক মেশিন, কেমিক্যাল, কাঁচামালসহ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ফায়ার সার্ভিস কমর্ীরা ওই আগুনের সুত্রপাতের সঠিক কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনো জানাতে পারেনি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, জুতার সোল তৈরির মেশিন থেকে আগুনের সুত্রপাত ঘটে। প্রায় ৮ ঘন্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও ২৪ ঘন্টায়ও আগুন নেভানি এবং ওই আগুন পুরোপুরি নেভাতে আরো একদিন লাগবে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস।

এফ বি ফুটওয়্যার লিমিটেড কারখানার এডমিন অফিসার আবু সালেহ জানান, ধারণা করা হচ্ছে, সোল তৈরির মেশিন থেকে আগুনের সুত্রপাত ঘটে। নিহত ওই নারী শ্রমিক টয়লেটে থাকায় বাইরে বের হতে পারেনি। এছাড়া আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তবে আগুনে পুড়ে যাওয়ার ক্ষয়ক্ষতির পরিমান এখনো নিরুপন করা যায়নি।

কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন কর্মকতার্ কবিরুল ইসলাম জানান, ফায়ার সার্ভিসের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হলেও রোববার পর্যন্ত আগুন পুরোপুরি নিভেনি। এখনো আগুন পুরোপুরি নেভাতে ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট কাজ করছে। তবে আগুনে পুড়ে যাওয়ার ক্ষয়ক্ষতির পরিমান এখনো নিরুপন করা যায়নি।

কালিয়াকৈর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রাজিব চক্রবর্তী জানান, এফ বি ফুটওয়্যার জুতা তৈরির কারখানার অগ্নিকান্ডের ঘটনায় নিখোঁজ গোলাপী আক্তার নামে এক নারী শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। পরে কালিয়াকৈর থানা পুলিশ লাশের সুরতহাল করে ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

কালিয়াকৈর উপজেলা নিবার্হী কর্মকতার্ কাজী হাফিজুল আমিন জানান, ওই অগ্নিকান্ডের ঘটনায় গাজীপুর জেলা প্রশাসক ছয় সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন।

এদিকে কালিয়াকৈর উপজেলার যোগীরচালা এলাকায় শনিবার রাত ১০টার দিকে রহমত টেক্সটাইল নামে এক কাখানার তুলার গোডাউনে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। তবে ওই কারখানার আগুনের সুত্রপাতের সঠিক কারণ জানা যায়নি বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস।

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap