আজ ১৪ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

কালিয়াকৈরে দুই কিশোরীকে ধর্ষণ, শিশুকে বলাৎকারের অভিযোগ

ফজলুল হক, কালিয়াকৈর(গাজীপুর)প্রতিনিধি:

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় দুটি এলাকায় গত দুইদিনে দুই কিশোরীকে ধর্ষণ ও এক শিশুকে বলাৎকারের অভিযোগে সোমবার রাতে পৃথক তিনটি মামলা করা হয়েছে। তিনটি ঘটনায় পুলিশ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈর উপজেলার কুতুবদিয়া গ্রামের রহম উদ্দিনের ছেলে মিজানুর রহমান (২২), সিরাজগঞ্জ জেলার বেলকুচি থানার চালা দক্ষিণ গ্রামের মৃত হরিদাস কুন্ডুর ছেলে গোপাল চন্দ্র দাস।
অভিযোগকারীরা জানান, গত ২০(সেপ্টেম্বর) উপজেলার টান কালিয়াকৈর গ্রামে আলমাছ মিয়ার বাড়ির ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী রাতে ঘরের বাইরে বের হলে মিজান জোড়পূর্বক অস্ত্রের মুখে পাশের আরেক ভাড়াটিয়ার ঘরে নিয়ে যান। সেখানে জোড়পূর্বক ধর্ষণ করে রাতেই পালিয়ে যান। এ ঘটনাটি ওই ছাত্রী পরিবারের সদস্যদের জানালে সোমবার রাতে শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা করেন। এ ঘটনায় পুলিশ মিজানকে মঙ্গলবার সকালে গ্রেপ্তার করে।
অপর ঘটনাটি উপজেলার মাটিকাটা গ্রামে রোববার রাতে ঘটে। কাইয়ূম আলী (২৩) নামের এক যুবক রাতে বেড়া ভেঙে ঘরে ঢুকে। পরে অস্ত্রের মুখে ১৫ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণ করেন। তখন পাশের লোকজন কিশোরীর ডাক-চিৎকারের শব্দ শুনে ধর্ষককে ধাওয়া দিলে তিনি পালিয়ে যান। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা করেন।
অপরদিকে মৌচাক এলাকার নুরবাগ গ্রামের সেলিম রেজার বাড়িতে এক শিশুকে বলাৎকারের অভিযোগে পুলিশ সোমবার রাতে গোপাল কুন্ডু নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। ওই শিশুর পরিবারের সদস্যরা জানান, রোববার সকালে বাসায় একা পেয়ে ওই যুবক শিশুকে একটি ঘরের দরজা বন্ধ করে তাকে বলাৎকার করেন। তখন ওই শিশু অসুস্থ হয়ে পড়লে বিকালে শিশুর মা-বাবা বাসায় ফিরে এসে ঘটনা জানতে পারেন। পরে এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা করলে ওই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, তিনটি ঘটনায় মামলা করা হয়েছে। দুই আসামিকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap