আজ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

এক বিছানায় নারী-পুরুষ, ‘বিগ বস’ বন্ধের দাবি

বিপাকে পড়েছে আলোচিত-সমালোচিত সালমান খান সঞ্চালিত রিয়ালিটি শো ‘বিগ বস’। এবার এই শো বন্ধের দাবি ওঠেছে। তাও আবার যেনতেন মানুষের কাছ থেকে নয়, একেবারে সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে এটি নিষিদ্ধ করার কথা বলা হচ্ছে। অভিযোগ, অশ্লীলতা। যা কিনা ভারতের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে।

ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, উত্তর প্রদেশ বিধানসভার সদস্য নন্দ কিশোর গুজ্জার অনুষ্ঠানটির সম্প্রচার বন্ধ করার দাবি তুলেছেন। এ সংক্রান্ত একটি চিঠি দেশটির তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকরকের কাছে পাঠানো হয়েছে। একই দাবি করে জেলা প্রশাসকের কাছে চিঠি দিয়েছে গাজিয়াবাদের ব্রাহ্মণ মহাসভা। ইতোমধ্যে এই শো নির্মাতাদের কাছ থেকে রির্পোট তলব করেছে তথ্য মন্ত্রণালয়।

প্রকাশ জাভড়েকরকে পাঠানো চিঠিতে নন্দ কিশোর জানিয়েছেন, ‘বিগ বস’ ভারতের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে। ভারতীয় ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতিকে কলুষিত করার চেষ্টা করছে। এতে কিছু অশ্লীল দৃশ্য দেখানো হচ্ছে, যা পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে বসে দেখার মত নয়।

সংসদ সদস্য নন্দ কিশোরের আপত্তি মূলত ‘বেড ফ্রেন্ড ফরেভার’ নামক ‘বিগ বস’-এ যে পর্ব দেখানো হয়েছে, সেটা নিয়ে। এখানে ভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষেরা একই বিছানায় শয়ন করে থাকে।

এদিকে কনফেডারেশন অব অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স (সিএআইটি) এই অনুষ্ঠানের সম্প্রচারের বিরোধিতা করছে। তারা বলছে, এই অনুষ্ঠানে সরাসরি নগ্নতা বা যৌনতা দেখানো হচ্ছে না, কিন্তু প্রতিযোগীরা নিজেদের মধ্যে এমন সব কথা বলছে, যা মোটেও ১৮ বছরের কম বয়সী তো দূরে থাক, পরিবারের বড়রাও একসঙ্গে বসে তা দেখতে পারবে না।

অন্যদিকে, ‘বিগ বস’ নিয়ে আপত্তি তুলে উত্তরপ্রদেশের নবনির্মাণ সেনার সভাপতি অমিত জৈন বলেছেন, এই রিয়ালিটি শো যতদিন না বন্ধ হবে আমি মুখে অন্ন তুলব না। যতদিন না সরকার থেকে এই শো নিষিদ্ধ করবে ততদিন আমি শুধু ফল আর সবজি খেয়ে থাকব।

এতসব অভিযোগের পর এখন দেখার বিষয় ‘বিগ বস’-এর ভবিষ্যৎ কি। এটি আসলেই বন্ধ হয়ে যাবে, নাকি যেভাবে আছে সেভাবেই থাকবে। আর এজন্য অপেক্ষা করতে হয়ে আরো কয়েকদিন।

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap