সাভারে শারদীয় দুর্গা পূজার প্রস্তুতি প্রায় সম্পন্ন

বিশেষ প্রতিনিধি:

সনাতন ধর্ম হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। এ উৎসবটি আশ্বিন মাসের শুক্ল পক্ষের দশমী তিথিতে দেবী কৈলাস পাড়ি দেয়ার মধ্যদিয়ে সমাপ্তি ঘটে। এ বছর মা দুর্গার অনুসারীদের মতে মা দুর্গা ঘটকে চরে আসবেন এবং আশ্বিন মাসের শুক্ল পক্ষের দশমী তিথিতে ঘটকে চরে কৈলাস পাড়ি দিবেন।
এবছর বাংলা ১৯শে আশ্বিন, ইংরেজী অক্টোবর মাসের ৪ তারিখ থেকে শুরু হয়ে বাংলা ২৩শে আশ্বিন শুক্ল পক্ষের দশমী তিথিতে ইংরেজী অক্টোবর মাসের ৮ তারিখে মা দুর্গার মূর্তি বিসর্জনের মাধ্যমে, বিজয়া দশমী পালন করে শেষ হবে এই ধর্মীয় উৎসবটি।

এই উৎসবকে ঘিরে সারা দেশের ন্যায় সাভার উপজেলার ১৮৩ টি পূজা মন্ডপ পূজার জন্য প্রায় প্রস্তুত। মৃৎশিল্পীরা এখন পূজার মূর্তিগুলোকে সর্ব শেষ প্রস্তুতের কাজে ব্যস্ত সময় পার করছে, কারো কারো দ্বিতীয় ধাপের রং এর কাজ চললেও কেউ কেউ প্রথম ধাপের রং এর কাজ করছে, তবে সকলেই জানিযয়েছেন দু’চারদিনের মধ্যেই তাদের মূর্তিগুলো পূজার জন্য পরিপূর্ণ প্রস্তুত হয়ে যাবে। ইতিমধ্যে ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার এর সাথে সাভার উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটি ও মন্ডপ কমিটির সাথে আইন শৃঙ্খলা ও পূজার সার্বিক বিষয় নিয়ে প্রস্তুতি সভা সম্পন্ন হযয়েছে।

সাভার উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির কোষাধ্যক্ষ গোবিন্দ ঘোষ জানান, এবার আমারা পূজাকে ঘিরে সাভার উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটি নতুন কিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এর ভিতর উল্লেখযোগ্য সিদ্ধান্ত হচ্ছে পূজা ও ধমর্ীয় গান বাজনা ছাড়া অন্য কোন গান-বাজনা করতে দেয়া হবেনা এবং পূজা উদযাপন কমিটির পক্ষ থেকে প্রতিটি মন্ডপে নিজেস্ব স্বেচ্ছাসেবক থাকবে ও সিসি ক্যামেরার আওতায় নিয়ে আসা হবে সাভার উপজেলার পূজমন্ডপ গুলোকে।

মৃৎশিল্পীরা বলছেন দুই আড়াই মাস ধরে মুর্তি তৈরির কাজ করে আসতেছি বাকি যে কয়দিন আছে এর মধ্যে আমরা মুর্তি রং করে পুরোপুরি ভাবে পুজার জন্য প্রস্তুত করতে পারবো।

মন্দির কমিটির সভাপতিরা বলেন আমাদের পুজা পালনে মন্ডপগুলো প্রায় প্রস্তুত, আশাকরি প্রতি বৎসরের ন্যায় এবারও সুন্দর ও সুষ্ঠভাবে পুজা উৎযাপন করতে পারবো।

পূজায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষার কাজে, বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি বাহিনীর ৩৬৬ জন মহিলা সহ ৪৩৪ জন পুরষ মোট ৮০০ জন আনসার-ভিডিপির সদস্য সদস্যা নিয়োজিত থাকবে বলে জানিয়েছেন সাভার উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা, পূজার দায়িত্ব বন্টন এর প্রস্তুতি সভা সহ সকল প্রস্তুতি প্রায় শেষের দিকে, ৪ইং অক্টোবর থেকে আনসার ভিডিপি সদস্য সদস্যরা সাভার উপজেলার প্রত্যেকটি পূজামন্ডপে পৌঁছে যাবে, এবং ৮ইং অক্টোবর বিজয়া দশমীর পালনের মধ্য দিয়ে আনসার ভিডিপি দাযয়িত্ব পালন শেষ করবে।