মাশরাফীর তিনে তিন

ডেস্ক রিপোর্ট  : প্রথম ওয়ানডেতে ক্যাচ, দ্বিতীয় ওয়ানডেতে এলবিডব্লিউ, তৃতীয় ওয়ানডেতে ক্যাচ; সিরিজে তিনবার আউটের ধরন এভিন লুইসের। তিনবারই তাকে সাজঘরের পথ দেখিয়েছেন মাশরাফী। তিন ম্যাচেই বাংলাদেশকে ব্রেক থ্রুও এনে দিলেন টাইগার অধিনায়ক।

আগের দুই ম্যাচের মতো অবশ্য সহজ হয়নি মাশরাফীর ব্রেক থ্রু আনা। প্রথম দুম্যাচে যেখানে তিরিশের কোটাই পেরোয়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজের উদ্বোধনী জুটি, সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে সেখানে পেরিয়ে গেল ফিফটি।

ক্রমেই খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসার হুঙ্কার ছুড়ছিলেন ক্রিস গেইল, সঙ্গী লুইস থাকলেন মন্থর। তারপরও ১০.১ ওভারে ৫৩ রান তুলে ফেলে স্বাগতিকরা। এরপরই দৃশ্যপটে মাশরাফী। অফস্টাম্পের বাইরে করা তার অফ-কাটারটি লাফিয়ে ওঠে হঠাতই, লুইসের ব্যাট ছুঁয়ে জমা পড়ে মুশফিকের গ্লাভসে। বাঁহাতি ওপেনার ৩৩ বলে করে যান ১৩ রান।

গেইল অবশ্য চালিয়ে যাচ্ছেন। তুলে নিয়েছেন ফিফটি। ফিফটি পেরিয়ে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজও।

সেন্ট কিটসে আগে ব্যাট করে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে নির্ধারিত ওভারে ৬ উইকেটে ৩০১ রান তুলেছে বাংলাদেশ। তামিমের শতক ও মাহমুদউল্লাহর অপরাজিত ফিফটিতে।

যাতে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে প্রথমবার তিনশ ছুঁয়েছে টাইগাররা। উইন্ডিজের বিপক্ষে আগের সর্বোচ্চটি ছিল ২৯২ রান, ২০১২ সালে খুলনায়। আর স্বাগতিকদের মাটিতে আগের সর্বোচ্চ ছিল এই সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে করা ২৭৯ রান।