ঢাকা জেলার ৫০ সদস্যের সংঘবদ্ধ ডাকাত চক্রের রহস্য উদঘাটন

খোরশেদ আলম,সাভারঃ প্রতিনিধি

ঢাকা জেলার কেরানীগঞ্জ থানায় ডাকাতদের কবলে পড়ে দুই ব্যাক্তি নিহতের ঘটনায় তদন্ত করতে গিয়ে ৫০ সদস্যের একটি সংঘবদ্ধ ডাকাত চক্রের সন্ধান পেয়েছে পুলিশ।

শুক্রবার (১৪ জুন) দুপুরে সাভার মডেল থানায় এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এমন তথ্য নিশ্চিত করেছেন ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমান।

তিনি জানান, কেরানীগঞ্জের একটি মার্ডার মামলা দুই আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় ৫০ সদস্যের ডাকাত দল ঢাকা জেলাসহ মুন্সীগঞ্জ, শরীয়তপুর, মাদারীপুর, গোপালগঞ্জ ও ফরিদপুরে সাইফুল গ্রুপ, রিপন গ্রুপ ও মোটা বাবুল গ্রুপসহ তিনটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে ছয়-সাত বছর ধরে রাস্তা/বসতবাড়িতে ডাকাতি করে আসছে। সম্প্রতি কেরানীগঞ্জ, সাভার ও আশুলিয়ার ডাকাতি কালে বিভিন্ন স্থান থেকে এই ডাকাত দলের ১৭ জনকে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে সাইফুল গ্রুপের প্রধান সাইফুল আলম শেখ (৪৫) পুলিশের সঙ্গে বন্দুক যুদ্ধে নিহত হয়। এছাড়া গত ১০ জুন আশুলিয়ার দুই ডাকাত দলের গোলাগুলিতে মোটা বাবুল গ্রুপের প্রধান বাবুল হাওলাদার (৪৫) গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান।

শাহ মিজান শাফিউর রহমান বলেন, ঢাকা থেকে দেশের বিভিন্ন জেলায় ডাকাতি, হত্যা, অপহরণসহ বিভিন্ন অপরাধ সংগঠিত করে আসছিল ৫০ জনের এই ডাকাত দল। এরা একেকজন দশ-বারটি করে মামলার আসামি। বাকি ডাকাত সদস্যদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান চলমান রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে এসময় সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ, আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাবেদ মাসুদ ও ঢাকা জেলা (উত্তর) গোয়েন্দা পুলিশের ওসি আবুল বাশারসহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।