গ্যাস প্রতারক আরিফুল ইসলাম আটক

খোরশেদ আলম, সাভার প্রতিনিধিঃ

নাম তার আরিফুল ইসলাম। বাবার সূত্র ধরে তিতাস গ্যাসের ঠিকাদারের কাজ করেন সাভার ও আশুলিয়া জুড়ে। গ্রাহক তিতাসের সংযোগ দেয়ার কথা বলে ব্যাংক ও সরকারি ফি বাবদ গ্রাহকের কাছ টাকা নেন। আবার ব্যাংকের সিল-স্বাক্ষর সমেত জমার রশিদ ঠিক সময় মতো তুলে দেন গ্রাহকের হাতে। এমনকি গ্রাহকের পুরোনো তিতাস গ্যাস বিল জমা দেয়ার কাজটিও করেন একই ভাবে।




এভাবে গ্রাহক নিশ্চিতে গ্যাস ব্যবহার করতে থাকেন। কিন্তু হঠাৎ করে বকেয়া বিল বা অবৈধ সংযোগের দায়ে তিতাসের দল আপনার দরজায় হাজির। তখন দেখেন আপনার টাকা জমা দেয়া ব্যাংকের রশিদ ও সিল-স্বাক্ষর সবই নকল। এসব টাকা কখনো ব্যাংকে জমাই পড়েনি।
এভাবে সাভার ও আশুলিয়ার বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন গ্রাহকের কাছ প্রতারণা করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে সেই প্রতারককে আরিফুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে।

আরিফুল ইসলাম(২৮) নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া থানার রাজিবপুর গ্রামের মৃত আব্দুল ছাত্তারের ছেলে। বর্তমানে আশুলিয়ার বগাবাড়ি এলাকায় আমিনুল ইসলামের বাড়িতে ভাড়া থাকেন।

রোববার দুপুরে তিতাস কর্তৃপক্ষ তাকে আটক করে আশুলিয়া থানায় সোপার্দ করেন।
সাভার তিতাস গ্যাস কতৃপক্ষ জানায়, আটক যুবক আশুলিয়ার বুড়িরবাজার এলাকায় মানিক হাজী নামের এক ব্যক্তিকে গ্যাস সংযোগ দেওয়ার কথা বলে দেড় লক্ষ টাকা প্রতারণা করে নেন এছাড়া ওই ব্যক্তির কাছে তিতাস গ্যাসের ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা বিল ইউসিবি ব্যাংক সাভার শাখায় জমা দেওয়ার কথা বলে নেন। পরে ওই প্রতারক ব্যাংকে টাকা জমা না দিয়ে ব্যাংকের সিল নকল করে ওই বাড়িওয়ালার কাছে জমা দেন। যে, তিনি ব্যাংকে টাকা জমা দিয়েছেন। পরে তিতাস গ্যাসের বিল বকেয়া থাকায় গতকাল তিতাস গ্যাস কৃতপক্ষ ওই বাড়িওয়ার লাইন সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে গেলে প্রতারণার বিষয়টি জানতে পারেন। পরে কৌশলে প্রতারককে আটক করে সাভার তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এ্যান্ড ডিষ্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেড এর কাছে হস্তান্তর করে। পরে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ আশুলিয়া থানায় মামলা দায়ের করে পুলিশের কাছে সোর্পদ করে।



ভুক্তভোগীরা জানান, আটক প্রতারণ যুবক তিতাস গ্যাস কতৃপক্ষের নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন ব্যক্তিকে অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেওয়ার কথা বলে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।
এবিষয়ে সাভার তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এ্যান্ড ডিষ্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী আবু সাদাৎ মোঃ সায়েম বলেন, তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের নামে কেউ অপকর্ম করলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।